১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং ♦ ৭ই ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ ♦ ১৪ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী ♦ মঙ্গলবার ♦
ডিজিটাল মেলা উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা Reviewed by Momizat on . নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা: ‘রেডি ফর টুমরো’এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে পঞ্চমবারের মতো ডিজিটাল মেলা উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় প্রধানমন্ত্রী তার নি নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা: ‘রেডি ফর টুমরো’এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে পঞ্চমবারের মতো ডিজিটাল মেলা উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় প্রধানমন্ত্রী তার নি Rating: 0
You Are Here: Home » জাতীয় » ডিজিটাল মেলা উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ডিজিটাল মেলা উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা: ‘রেডি ফর টুমরো’এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে পঞ্চমবারের মতো ডিজিটাল মেলা উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় প্রধানমন্ত্রী তার নির্ধারিত বক্তব্যের শেষে সিঙ্গাপুরে প্রস্তুত ও সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পাওয়া কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন রোবট সোফিয়ার সঙ্গে কথা বলেন। এর পরই তিনি মেলার উদ্বোধনের ঘোষণা দেন। সোফিয়া এবারের মেলার মূল আকর্ষণ।

বুধবার বেলা ১২ টার দিকে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চার দিনব্যাপী দেশের সর্ববৃহৎ তথ্যপ্রযুক্তি উৎসব ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’ বা ডিজিটাল মেলা শুরু হয়েছে।

তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সর্ববৃহৎ এ মেলায় ফিলিপাইন, মালদ্বীপ, সৌদি আরব, আফগানিস্তানসহ বিভিন্ন দেশের মন্ত্রীবর্গের উপস্থিতিতে ৭ ডিসেম্বর মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হবে। এতে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। ৯ ডিসেম্বর অ্যাওয়ার্ড নাইটের মাধ্যমে শেষ হবে প্রযুক্তির এই সুবিশাল মিলনমেলা।

আইসিটি ডিভিশনের উদ্যোগে আয়োজিত তথ্যপ্রযুক্তি খাতের এই মহাসম্মিলন ও প্রদর্শনীতে আয়োজন সহযোগী হিসেবে থাকছে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি), বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার এন্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) ও একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই)।

এছাড়া, শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের দেশী-বিদেশী ২০০ শতাধিক বক্তা প্রায় ২৯টি সেমিনারে অংশ নিয়েছে। গুগল, ফেসবুক, নুয়ান্স কমিউনিকেশন, মটোরোলা, কোয়ালকম, টাই সিঙ্গাপুর ও হংকং এর কর্তাব্যক্তিগণ এই আয়োজনে অংশ নিয়েছে। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আইটি ক্যারিয়ার-ক্যাম্পের পাশাপাশি উন্নয়ন সহযোগীদের নিয়ে রয়েছে ডেভেলপারস কনফারেন্স। প্রযুক্তিপ্রেমীদের চাহিদা মেটাতে সফটওয়্যার শোকেসিং, ই-গভর্নেন্স এক্সপো, স্টার্ট-আপ বাংলাদেশ জোন, মোবাইল ইনোভেশন জোন, ই-কমার্স জোন, এক্সপেরিয়েন্স জোন, মেড ইন বাংলাদেশ জোন এবং ইন্টারন্যাশনাল জোন ছাড়াও আইসিটি সংশ্লি¬ষ্ট বেশ কিছু প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশের কৃতী সন্তান, বিশ্বখ্যাত এনিমেটর, যিনি দু’বার অস্কার পুরস্কার লাভ করার মাধ্যমে বাংলাদেশের নাম বিশ্ব দরবারে উজ্জ্বল করেছেন, নাফিস বিন যাফর এবারের আয়োজনে অংশ নেবেন।

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, চার দিনব্যাপী ডিজিটাল মেলার মাধ্যমে আমরা স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক আইটি জায়ান্টদের কাছে আমাদের উন্নয়নমেূলক কর্মকান্ডের বিভিন্ন দিক তুলে ধরার চেষ্টা করছি। পাশাপাশি আমরা বিগ ডেটা অ্যানালিস্টিক্স, মেশিন লার্নিং, ফিন্টেক, বায়োটেক, কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা এবং রোবোটিক্সের মতো আধুনিক ও চলমান প্রযুক্তিতে নিজেদের সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য কাজ করছি।

তিনি আরো বলেন, প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এই মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। তবে অংশগ্রহনকারীদের অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এর জন্য কোন ধরনের ফি দিতে হবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৮ সালের ১২ ডিসেম্বর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের ঘোষণা দেন। এরপর থেকে প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা, আর্কিটেক্ট অব ডিজিটাল বাংলাদেশ সজীব ওয়াজেদ জয়ের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে ও নির্দেশনায় বিগত ৯ বছরে বাংলাদেশের প্রযুক্তি খাত লক্ষণীয় অগ্রগতি লাভ করেছে।

২০০৯ সাল থেকে আজ পর্যন্ত দীর্ঘ ৯ বছরে ডিজিটাল বাংলাদেশের অর্জন ও অগ্রগতি উপস্থাপন করা, আগামীর সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করা এবং এজন্য দেশীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতার ক্ষেত্র প্রস্তুত করার লক্ষ্য নিয়ে এ মেলার আয়োজন করা হচ্ছে।

Leave a Comment

Scroll to top